Home নির্বাচিত খবর হেফাজতের নিয়ন্ত্রণ বাবুনগরী-কাসেমীর হাতে, শফীপন্থীরা বাদ

হেফাজতের নিয়ন্ত্রণ বাবুনগরী-কাসেমীর হাতে, শফীপন্থীরা বাদ

বিশেষ প্রতিনিধি:

প্রতিষ্ঠাতা আমীর প্রয়াত শাহ আহমদ শফীর সন্তানসহ অধিকাংশ অনুসারীদের বাদ দিয়ে হেফাজতে ইসলামের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছেন জুনায়েদ বাবুনগরী ও নূর হোসাইন কাসেমী। সংগঠনটির আমীর ও মহাসচিব পদে নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে বাবুনগরী ও কাসেমী।  রোববার (১৫ নভেম্বর) সকালে চট্টগ্রামের হাটহাজারীর বড় মাদরাসা হিসেবে পরিচিত দারুল উলুম মইনুল ইসলাম মাদরাসায় প্রতিনিধি সম্মেলন শুরু হয়। এরপর দুপুরে সাংবাদিকদের সামনে ১৫১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর মধ্য দিয়ে কওমী মাদরাসাভিত্তিক এ সংগঠনটি ভাঙনের মুখে পড়তে যাচ্ছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

হেফাজতে ইসলামের পুনঃনির্বাচিত সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী সারাবাংলাকে জানান, ১৫১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটিতে আমীর ও মহাসচিব ছাড়াও নায়েবে আমীর পদে ৩২ জন, যুগ্ম-মহাসচিব পদে চারজন, সহকারী মহাসচিব পদে ১৮ জন এবং সম্পাদকমণ্ডলীর বিভিন্ন পদে রয়েছেন ৮১ জন। এছাড়া উপদেষ্টামণ্ডলীতে আছেন ২৫ জন। দেশের আট বিভাগের বিভিন্ন কওমী মাদরাসার প্রতিনিধিদের মধ্য থেকে এই নেতৃত্ব নির্বাচন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

নতুন নির্বাচিত আমীর জুনায়েদ বাবুনগরী হেফাজতে ইসলামের প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তিনি হাটহাজারীর দারুল উলুম মইনুল ইসলাম মাদরাসার শিক্ষা সচিব এবং প্রধান শায়খুল হাদিস হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
নতুন নির্বাচিত মহাসচিব নুর হোসাইন কাসেমী ঢাকার জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদরাসার প্রিন্সিপাল। তিনি কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটভুক্ত রাজনৈতিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব।

প্রতিষ্ঠাতা আমীর শাহ আহমদ শফীর ছেলে আনাস মাদানী হেফাজতে ইসলামের বিদায়ী কমিটিতে প্রচার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছিলেন। একই কমিটিতে কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন মঈনুদ্দিন রুহী। তাদের কারও জায়গা হয়নি নতুন কমিটিতে। মঈনউদ্দিন রুহী বলেন, এই সম্মেলন আমরা মানি না। আমরা যারা শাহ আহমদ শফী হুজুরের অনুসারী আমাদের অধিকাংশ সদস্যকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এমনকি হুজুরের ছেলেকেও কমিটিতে রাখা হয়নি। আমাদের সম্মেলনের দাওয়াতও দেওয়া হয়নি। এজন্য আমরা এই সম্মেলন এবং কমিটি প্রত্যাখান করছি। এই সম্মেলন গঠনতন্ত্র মোতাবেক হয়নি, এটা অবৈধ। শাহ আহমদ শফী হুজুরের হাতেগোনা দুয়েকজন অনুসারীকে কমিটিতে রাখা হয়েছে। তারাও সেই পদ প্রত্যাখান করেছেন। রুহী বলেন, শাহ আহমদ শফী হুজুর হেফাজতে ইসলামের প্রতিষ্ঠাতা। তিনিই এই সংগঠনের জন্ম দিয়েছেন। আমরা যারা উনার উত্তরসুরী, আমরাই হেফাজতের মূলধারা। আমাদের বাদ দিয়ে কোনো সম্মেলন হতে পারে না। এ ব্যাপারে আমরা শিগগিরই সিনিয়র হুজুরদের সঙ্গে কথা বলে করণীয় নির্ধারণ করব।

এদিকে কমিটি থেকে আহমদ শফীর অনুসারীদের বাদ দেওয়ার কথা নাকচ করেননি আজিজুল হক ইসলামাবাদী। তিনি সারাবাংলাকে বলেন, কমিটিতে না রাখার বিষয়টি তো এমনি এমনি হয়নি। নিশ্চয় কোনো কারণ আছে। উনারা না রাখার পরিবেশ তৈরি করেছেন বলেই বাদ পড়েছেন।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে মঈনউদ্দিন রুহী অভিযোগ করেছিলেন, অরাজনৈতিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামকে বিএনপি-জামায়াতের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য প্রতিনিধি সম্মেলন আহ্বান করা হয়েছে। আহমদ শফীকে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে এর বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন এবং তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রতিনিধি সম্মেলন না করার আহ্বান জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

র‍্যাব নিষিদ্ধে ১২ মানবাধিকার সংস্থার আবেদন খতিয়ে দেখবে জাতিসংঘ

দখিনের সময় ডেস্ক: শান্তিরক্ষা মিশনে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নকে (র‍্যাব) নিষিদ্ধ করতে ১২টি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার আবেদনের বিষয়টি খতিয়ে দেখবে জাতিসংঘ। বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) নিয়মিত প্রেস...

যাত্রী মাস্ক পরা নিয়ে আপত্তি করার মাঝপথ থেকে ফিরলো বিমান

দখিনের সময় ডেস্ক: প্রায় এক ঘণ্টারও বেশি সময় বিমান চালনার পর একজন নারী যাত্রীর মাস্ক পরা নিয়ে অস্বীকৃতির কারণে মাঝপথে ফেরত এসেছে একটি বিমান। আমেরিকান...

ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমান হামলা, নিহত শতাধিক

দখিনের সময় ডেস্ক: ইয়েমেন উত্তরাঞ্চলের সা’দা শহরের একটি অস্থায়ী বন্দী শিবিরে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে...

বাম হাত দিয়ে কোনো কিছু আদান-প্রদান নিন্দনীয়

দখিনের সময় ডেস্ক: বাম হাত ব্যবহার করে খাবার, পানীয় গ্রহণ বা কোনো জিনিসপত্র আদান-প্রদান করা নিন্দনীয়। এমন কাজ করা থেকে প্রত্যেক মুসলিমের বিরত থাকা আবশ্যক।...

Recent Comments