Home আন্তর্জাতিক ইমরান খানের সঙ্গে বেঈমানি করে নির্বাচনে হারলেন যারা

ইমরান খানের সঙ্গে বেঈমানি করে নির্বাচনে হারলেন যারা

দখিনের সময় ডেস্ক:
পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) কারাবন্দি নেতা ইমরান খান অনুগতরা বড় জয় পেয়েছেন। কিন্তু বিপদের সময় বেঈমানি করা নেতারা মুখ থুবড়ে পড়েছেন। পারভেজ খট্টক ও জাহাঙ্গীর তারিনরা কেউই জিততে পারেননি। এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিটিআই প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খানের প্রতি অনুগতরা, যাদের অনেকেই রাজনৈতিকভাবে একেবারে নতুন, ৮ ফেব্রুয়ারির সাধারণ নির্বাচনে প্রভাবশালী প্রার্থীদের হারিয়ে দিয়েছেন। এখন জোট সরকার গঠনের চেষ্টা করছেন। কিন্তু ক্যাপ্টেনের সঙ্গে বেঈমানি করা রাজনীতিকরা দেশের শক্তিশালী চক্রের সমর্থন নিয়েও অপমানজনক পরাজয়ের শিকার হয়েছেন।
 ২০২২ সালে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকেই পিটিআই’র ওপর দমনপীড়ন শুরু হয়। এরপর গত বছরের ৯ মে দুর্নীতির মামলায় ইমরানকে গ্রেফতার করা হয়। এই ঘটনার জেরে সেদিন দেশব্যাপী জাতীয় নিরাপত্তা স্থাপনাগুলোয় হামলা হয়। এই হামলার কারণে পিটিআই রাষ্ট্রীয় রোষানলে পড়ে।
 ইমরানের দলকে আক্ষরিক অর্থে পাকিস্তানের রাজনৈতিক অঙ্গন থেকে মুছে ফেলতে সব চেষ্টা করা হয়। দলের শীর্ষ নেতাসহ অনেক কর্মীকে কারাগারে ভরা হয়। দল পরিবর্তন বা রাজনীতি ছেড়ে দিতে চাপ দেয়া হয়। গণমাধ্যমে তাদের খবর প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়। নজিরবিহীন এই দমনপীড়নের মধ্যেও অনেক নেতাকর্মীই ইমরানকে ছাড়েননি। কিন্তু ইমরান খানের এই বিপদের দিনে সুবিধাবাদী কিছু নেতা পিটিআই ত্যাগ করেন। কেউ নিজে দল গড়েন। আবার কেউ অন্য দলে যোগ দেন। সেই সময় ইমরানকে ত্যাগ করা খ্যাতনামা রাজনীতিকদের মধ্যে অন্যতম পারভেজ খট্টক। তিনি খাইবার পাখতুনখোয়ার সাবেক মুখ্যমন্ত্রী। পিটিআই ছেড়ে খট্টক পিটিআই-পার্লামেন্টারিয়ান (পিটিআই-পি) নামে দল গড়েন।
ব্যবসায়ী ও রাজনীতিক জাহাঙ্গীর তারিন একসময় ইমরান খানের খুব কাছের মানুষ ছিলেন। তিনিও পিটিআই ছাড়েন। গঠন করেন ইস্তেহকাম-ই-পাকিস্তান পার্টি (আইপিপি)। স্পষ্টতই ক্ষমতাশালী চক্রের ইশারায় পিটিআই ত্যাগীদের দলে ভেড়াতে তিনি এই কাজ করেন। তবে ৮ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে এই দুই নেতা বাজেভাবে হেরেছেন। পারভেজ খট্টক খাইবার পাখতুনখোয়ার নওশেরা এনএ-৩৩ আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ইমরান খানের পিটিআই সমর্থিত প্রার্থী শহিদ আহাদ খট্টকের কাছে হেরেছেন তিনি।
 আর জাহাঙ্গীর তারিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন পাঞ্জাবের মুলতানে এনএ-১৪৯ আসনে। তাকে ধরাশায়ী করেছেন পিটিআই সমর্থিত প্রার্থী মোহাম্মদ আমির দোগার। নির্বাচনী প্রচারের সময় খট্টক জোর গলায় বলেছিলেন, তিনি আবারও খাইবার পাখতুনখাওয়ার মুখ্যমন্ত্রী হবেন। আর পিটিআইসমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরাও জয়ের পর তার সঙ্গে জোট করবেন।
 অন্যদিকে তারিনেরও অনেক বড় স্বপ্ন ছিল। তার আইপিপি নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) সঙ্গে আসন সমঝোতা চুক্তি পর্যন্ত করে। তারিন বলেছিলেন, তারা একত্রে কেন্দ্র ও পাঞ্জাবে সরকার গঠন করবেন। তবে তারিন হারলেও তার দল আইপিপি লাহোর থেকে ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি তথা জাতীয় পরিষদের মাত্র দুটি আসন পেয়েছে। একটি আলিম খানের, অন্যটি আওন চৌধুরীর। তবে উভয়ের বিরুদ্ধে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ উঠেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা তাদের নির্বাচনী জয়কে আদালতে চ্যালেঞ্জ করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

উন্নত প্রযুক্তি সমৃদ্ধ আঙুলের রিং আনছে স্যামসাং, থাকছে যেসব ফিচার

দখিনের সময় ডেস্ক: বছরের প্রথম ‘গ্যালাক্সি আনপ্যাকড’ ইভেন্টে নতুন গ্যালাক্সি এআই প্রযুক্তি এবং গ্যালাক্সি এস২৪ স্মার্টফোন সিরিজের ঘোষণা করেছে স্যামসাং। গতকাল (১৭ জানুয়ারি) আয়োজিত ইভেন্টটির...

অন্যের চার্জার দিয়ে ফোন চার্জ দিয়ে নিজের যে ক্ষতি করছেন

দখিনের সময় ডেস্ক: মোবাইল ফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অন্যতম অনুষঙ্গ। সবার হাতে হাতেই এখন মোবাইল ফোন। তবে ফোন আলাদা হলেও চার্জারের ক্ষেত্রে অনেকেই চিন্তা করেন...

আইফোনে পাসকোড ব্যবহারে সতর্কতার পরামর্শ

দখিনের সময় ডেস্ক: স্মার্টফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অন্যতম অনুষঙ্গ। বর্তমানে আইফোনের জনপ্রিয়তাও বেশ। প্রয়োজনীয় প্রিয় ফোনটি চুরি হলে বা হারিয়ে গেলে হতাশ হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক।...

আদা বেশি খাওয়ার অপকারিতা

দখিনের সময় ডেস্ক: আদার অনেক উপকারিতার কথা জেনেছেন নিশ্চয়ই। সর্দি-কাশি সারানো থেকে বমি বমিভাব দূর, নানা উপকারে লাগে এই ভেষজ। আবার আমাদের প্রতিদিনের রান্নায়ও ব্যবহার...

Recent Comments